মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২১st মার্চ ২০১৬

জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনায় ধর্মসচিব- বঙ্গবন্ধু শুধু একটি নাম নয় একটি ইতিহাস


প্রকাশন তারিখ : 2016-03-17

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আব্দুল জলিল বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শুধু একটি নাম নয় একটি ইতিহাস, যে ইতিহাস বাঙালির হাজার বছরের। বাংলার মাটি ও ইতিহাস থেকে তাঁর সৃষ্টি। বঙ্গবন্ধুর অনেক উদ্যোগের মধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করা ছিল একটি বলিষ্ঠ পদক্ষেপ। আজ (১৭ মার্চ, বৃহস্পতিবার) সকাল ১১.০০টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৬ উদ্যাপন উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম মিলনায়তনে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, দেশে আজ এত নৈতিক অবক্ষয় দেখা দিত না যদি প্রতিষ্ঠার পর থেকে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সঠিক পথে পরিচালিত হত।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস এর গভর্নর সিরাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ছাত্রজীবন থেকেই বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক চিন্তা চেতনা ধারণ করতেন। তার কর্মের পথটাকে আমাদের অনুসরণ করতে হবে।

প্রধান আলোচক হিসেবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস এর গভর্নর আলহাজ্জ মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না। বাঙালি জাতির মুক্তি, স্বাধীনতা ও জন্ম সবই তাঁর জন্য সম্ভব হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা না হলে আলেমদের কার্যক্রমও এত ব্যাপকতা লাভ করত না।

          অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ অহিদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর দেশের আর্থ-সামাজিক ও অবকাঠামোগত যে উন্নয়ন বঙ্গবন্ধু করেছিলেন তার ওপর ভিত্তি করেই দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক এএমএম সিরাজুল ইসলাম, মুহাম্মদ তাহের হোসেন ও ড. মুহাম্মদ আবদুস সালামসহ ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাধারণ মুসল্লিগণ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১০.০০ টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পনেরো আগস্টের শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে কুরআনখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত ধর্মসচিব মোঃ আব্দুল  জলিল, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচাল (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ অহিদুল ইসলামসহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব মোঃ আব্দুল জলিল বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শুধু একটি নাম নয় একটি ইতিহাস, যে ইতিহাস বাঙালির হাজার বছরের। বাংলার মাটি ও ইতিহাস থেকে তাঁর সৃষ্টি। বঙ্গবন্ধুর অনেক উদ্যোগের মধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করা ছিল একটি বলিষ্ঠ পদক্ষেপ। আজ (১৭ মার্চ, বৃহস্পতিবার) সকাল ১১.০০টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মদিবস ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৬ উদ্যাপন উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম মিলনায়তনে আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও মিলাদ মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, দেশে আজ এত নৈতিক অবক্ষয় দেখা দিত না যদি প্রতিষ্ঠার পর থেকে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সঠিক পথে পরিচালিত হত।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস এর গভর্নর সিরাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ছাত্রজীবন থেকেই বঙ্গবন্ধু অসাম্প্রদায়িক চিন্তা চেতনা ধারণ করতেন। তার কর্মের পথটাকে আমাদের অনুসরণ করতে হবে।

প্রধান আলোচক হিসেবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস এর গভর্নর আলহাজ্জ মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না। বাঙালি জাতির মুক্তি, স্বাধীনতা ও জন্ম সবই তাঁর জন্য সম্ভব হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা না হলে আলেমদের কার্যক্রমও এত ব্যাপকতা লাভ করত না।

          অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ অহিদুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর দেশের আর্থ-সামাজিক ও অবকাঠামোগত যে উন্নয়ন বঙ্গবন্ধু করেছিলেন তার ওপর ভিত্তি করেই দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক এএমএম সিরাজুল ইসলাম, মুহাম্মদ তাহের হোসেন ও ড. মুহাম্মদ আবদুস সালামসহ ফাউন্ডেশনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাধারণ মুসল্লিগণ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকাল ১০.০০ টায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পনেরো আগস্টের শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে কুরআনখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে ভারপ্রাপ্ত ধর্মসচিব মোঃ আব্দুল  জলিল, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচাল (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ অহিদুল ইসলামসহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক।


Share with :
Facebook Facebook