মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ August ২০১৭

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ইসলামের নাম ব্যবহার করে জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করে ইসলামকে কলঙ্কিত করা হচ্ছে -বলেছেন চট্টগ্রামের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন


প্রকাশন তারিখ : 2017-08-08
চট্টগ্রাম, সোমবার, ৭ আগস্ট ২০১৭॥ 
চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ. জ. ম নাছির উদ্দিন বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ইসলামের নাম ব্যবহার করে জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করে ইসলামকে কলঙ্কিত করা হচ্ছে। যারা জঙ্গীবাদ সৃষ্টি করছে, অর্থায়ন করছে এবং আত্মঘাতী হচ্ছে তারা ইসলামের শত্রু। তিনি আজ (৭ আগস্ট) সোমবার সকাল ১১.০০ টায় চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ কমপ্লেক্স ময়দানে ইসলামিক ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয় আয়োজিত ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিরোধী প্রশিক্ষণ এবং দাওয়াতী মাহফিল’ শীর্ষক আলেম সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। 
তিনি পবিত্র কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে মুসলমানদেরকে সঠিক ইসলামের দাওয়াত প্রদানের জন্য ইমাম ও আলেম সমাজের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, জুমার খুতবায় ধর্মীয় মূল্যবোধ ও নৈতিকতার ওপর গুরুত্বারোপ করে বয়ান করা হলে দেশ ও জাতি উপকৃত হবে। তিনি আরো বলেন, আলেম-ওলামাদের সম্মান ও কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যাপক চিন্তাভাবনা ও কর্মপরিকল্পনা রয়েছে।
ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, আগামী বছর থেকে সারাদেশে ১০১০টি দারুল আরকাম মাদ্রাসা চালু করা হচ্ছে যেখানে দ্বীনী ও নৈতিকতা শিক্ষার পাশাপাশি আরবি শিক্ষার ওপর গুরুত্বারোপ করা হবে। তিনি আরো বলেন, সরলমনা মুসলমানদেরকে ধোঁকা দিয়ে মওদুদী জামাত রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের জন্য ইসলামকে ব্যবহার করছে।
আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা এক অনন্য অসাধারণ নেতা হিসেবে বিশ্বের বুকে স্থান করে নিয়েছে। তিনি উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজার রাখার জন্য শেখ হাসিনাকে পুনরায় ক্ষমতায় আনার আহ্বান জানান।
বাংলাদেশ ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মিছবাহুর রহমান চৌধুরী বলেন, জামাত শিবির ছাড়া বাংলাদেশে আর কোনো সন্ত্রাসবাদ নেই। তারা ছদ্মবেশে সরকারী চাকুরী, ব্যাংক-বীমাসহ সর্বক্ষেত্রে অবস্থান করছে। তাদের ব্যাপারে সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে।
আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন বলেন, ইসলামের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও তাঁর কন্যা শেখ হাসিনা যতটুকু করেছে অতীতের কোনো সরকার তা করেনি। তিনি বলেন, ইসলামকে যারা ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য ব্যবহার করে তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন বোর্ড অব গভর্নরস-এর গভর্নর এডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ও  মিছবাহুর রহমান চৌধুরী, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, চট্টগ্রামের পুলিশ কমিশনার মোঃ ইকবাল বাহার বিপিএম, পুলিশ সুপার মোঃ নূরে আলম মিনা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মামুনুর রশিদ, অধ্যাপক মাসুম চৌধুরী, মাওলানা জহিরুল ইসলাম মিঞা, মাওলানা মনিরুজ্জামান রাব্বানী ও আল্লামা কাজী মঈনুদ্দীন আশরাফী প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক আবুল হায়াত মুহাম্মদ তারেক। 
সমাবেশে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙামাটি, বান্দরবান ও খাগড়াছড়ি থেকে ৫ সহ¯্রাধিক আলেম-ওলামা অংশ নেন।
অনুষ্ঠান শেষে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ১৫ আগস্ট শহীদদের রূহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয়। মুনাজাত পরিচালনা করেন চট্টগ্রাম জমিয়তুল ফালাহ মসজিদের খতীব মাওলানা ক্বারী সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দিন।

Share with :
Facebook Facebook