মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৮ মার্চ ২০১৮

বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে বিশ্বের বুকে সর্বোচ্চ মর্যাদার আসনে আসীন করে গেছেন- বলেছেন শাহে আলম মুরাদ


প্রকাশন তারিখ : 2018-03-18

ঢাকা, শনিবার, ১৭ মার্চ ২০১৮॥ 
         বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিনের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে বিশ্বের বুকে সর্বোচ্চ মর্যাদার আসনে আসীন করে গেছেন। যুদ্ধবিদ্ধস্ত দেশকে নিরলস পরিশ্রম করে একটি শক্ত অবস্থানে দাড় করিয়েছিলেন তিনি। জাতির জনক আমাদের একটি পতাকা ও একটি সংগীত দিয়েছেন, দিয়ে গেছেন একটি স্বাধীন মানচিত্র। আজ সকাল ১১ টায় জাতীয় শিশু দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৯৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বায়তুল মুকাররম  মিলনায়তনে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, এই ইসলামিক ফাউন্ডেশন বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া প্রতিষ্ঠান। জাতির জনক বিশ্ব ইজতেমার জন্য তুরাগের তীরে ও কাকরাইল মসজিদের জন্য জায়গা বরাদ্দ করেছিলেন। তিনি এই স্বাধীন বাংলায় রেসকোর্স ময়দানে ঘোড়দৌড় ও মদ জুয়ার আসর বন্ধ করেছিলেন। তিনি ছিলেন প্রকৃত একজন দেশপ্রেমিক ও খাঁটি মুসলমান।
          বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের গভর্নর শায়খ আল্লামা গোলাম মওলা নকশেবন্দী বলেন, বঙ্গবন্ধুর পূর্ব পুরুষ এ দেশে ইসলাম প্রচারের জন্য এসেছিলেন। ইসলাম ধর্মের ক্ষতি হয় এমন কোন কাজ বঙ্গবন্ধু করেছেন এমন একটি উদাহরণ কেউ দেখাতে পারবে না। 
প্রধান আলোচকের বক্তব্যে আই জি আর ও সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ খান মোঃ আব্দুল মান্নান বলেন, বঙ্গবন্ধু একজন ধার্মিক মানুষ ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ইসলামিক চেতনা না থাকলে তিনি ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করতেন না। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রিত্ব বিসর্জন দিয়ে ৭ মার্চ রেসকোর্সের ময়দানে তিনি যে রাষ্ট্রনায়কোচিত ভাষণ দিয়েছিলেন তার প্রতিটি লাইন, শব্দ ও অক্ষর বিশ্লেষণযোগ্য। 
ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক কামাল চৌধুরী বলেন, বিশ্বের শ্রেষ্ঠ দেশপ্রেমিকদের নাম বলতে গেলে সবার আগে বঙ্গবন্ধুর নাম স্মরণ করতে হবে। সোনার বাংলা গঠনে বাঙ্গালি জাতিকে বঙ্গবন্ধুর নীতি ও আদর্শের পথে চলতে হবে। 
         ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের গভর্নর ও সাবেক সচিব সিরাজউদ্দিন আহমেদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোঃ মোজাহারুল মান্নান, ফাউন্ডেশনের পরিচালক ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের আহ্বায়ক মুহাম্মদ মহীউদ্দিন মজুমদার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
         অন্যদিকে আজ সকাল ৮টায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালকের নেতৃত্বে ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুলেল শ্রদ্ধা জানানো হয়।  এরপর সকাল ১০.৩০ টায় বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিন সাহানে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শাহাদাতবরণকারী সকল সদস্যের রূহের মাগফিরাত কামনায়  কুরআনখানি, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া ও মুনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মহিউদ্দীন কাশেম।

 


Share with :
Facebook Facebook