মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৩rd এপ্রিল ২০১৭

যে শিক্ষা আলো দেয় না সেটা প্রকৃত শিক্ষা নয়- ধর্মসচিব


প্রকাশন তারিখ : 2017-04-23

ঢাকা, শনিবার, ২২ এপ্রিল ২০১৭॥ 
    ধর্মসচিব মোঃ আব্দুল জলিল বলেন, যে শিক্ষা আলো দেয় না সেটা প্রকৃত শিক্ষা নয়। শিক্ষার উদ্দেশ্য হচ্ছে আলোর পথের সন্ধান দেয়া এবং পৃথিবীকে আবিষ্কার করা। দ্বীন ছাড়া দুনিয়া কিংবা দুনিয়া ছাড়া দ্বীন পূর্ণতা পায় না। তিনি আজ (২২ এপ্রিল শনিবার) সকালে রাজধানীর আগারগাঁও ইসলামিক ফাউন্ডেশন সভাকক্ষে দারুল আরকাম (প্রাথমিক শিক্ষা) মাদ্রাসার জন্য প্রণীত খসড়া কারিকুলাম ও পাঠ্যপুস্তকের ওপর মতনিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে ১০১০টি দারুল আরকাম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করা হবে। এর মাধ্যমে একটি সমন্বিত শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করা হবে যেখানে শিশুদের ধর্মীয় ও নৈতিকতা শিক্ষার ভিত্তি রচিত হবে।
    ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা মীর হাবিবুর রহমান যুক্তিবাদী, মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক এবিএম আমিন উল্লাহ নূরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের প্রফেসর ড. মোঃ আজহারুল ইসলাম, প্রফেসর ড. মোঃ আবদুল আউয়াল খান, আরবি বিভাগের প্রফেসর ড. মোঃ আবু বকর সিদ্দীক, উর্দু বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ গোলাম রব্বানী, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ বিল্লাল হোসেন, প্রফেসর ড. একেএম ইয়াকুব হোসাইন, ড. মাওলানা সৈয়দ এমদাদ উদ্দিন, মাওলানা আবদুর রাজ্জাক, মুফতী রফিকুল ইসলাম আল মাদানী, মাওলানা সৈয়দ ওয়াহিদুয্যামান, ড. মুহাম্মদ রুহুল আমিন ও শায়খ উছমান গণী  প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন । 
ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল বলেন, এলেমওয়ালা প্রকৃতআলেম তৈরি করতে হলে কুরআন-হাদিস ওহীর জ্ঞান আরবিতে শিখতে ও বুঝতে হবে। দ্বীনি শিক্ষার কারিকুলাম আরবি ভাষায় রচনা করতে পারলে শিক্ষার বিকৃতি রোধ করা সম্ভব। এর মাধ্যমে যোগ্য আলেম তৈরি হবে এবং দ্বীনি শিক্ষা ও দ্বীনি দাওয়াতের কাজ আরো মজবুত হবে।
সভায় অন্যান্য বক্তারা দারুল আরকাম মাদ্রাসার কারিকুলাম ও পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নের জন্য মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ প্রদান করেন। সভায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কওমী ও আলিয়া নেছাবের বিশিষ্ট আলেম-ওলামা, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, কারিকুলাম স্পেশালিস্ট, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের কর্মকর্তাসহ শতাধিক বিশেষজ্ঞ অংশ নেন

 


Share with :
Facebook Facebook