মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৮ অক্টোবর ২০১৫

ইসলামিক মিশন

ইসলামের প্রচার ও প্রসারের লক্ষে ১৯৭৫ সালে ২২ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। প্রতিষ্ঠার পর বিগত ৪০ বছর ধরে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ১৬টি বিভাগের মাধ্যমে আর্থ সামাজিক ও ধর্মীয় ক্ষেত্রে উন্নয়নের লক্ষে মসজিদ ভিত্তিক গণশিক্ষা, ইসলামী প্রকাশনা, ইমাম প্রশিক্ষণ, ইসলামিক মিশন ইত্যাদি বিভাগের সহযোগিতায়সসেবামূলক কার্যক্রম গ্রহণ ও পরিচালনা করে আসছে।
 

ইসলামিক মিশন নিম্নোক্ত লক্ষে ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছেঃ
 

  1. বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা, রোগ নির্ণয় ও ঔষধ প্রদান 
  2. দুস্থ মহিলাদের সেলাই প্রশিক্ষণ প্রদান।
  3. মসজিদ ভিত্তিক মক্তবে শিক্ষা প্রদান।
  4. দুঃস্থ মানবতার সেবা।
  5. দারিদ্র দূরীকরণ ও আর্থিক সচ্ছলতা অর্জনে সুদমুক্ত ক্ষুদ্র ঋণদান।
  6. নিরক্ষতা দূরীকরণ।
  7. মিশন কেন্দ্রিক এবতেদায়ী মাদরাসা  প্রতিষ্ঠা
  8. জাতীয় ও ধর্মীয় দিবস উদযাপন।
  9. সমাজে ইসলামী মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা এবং জনগণের নিকট ইসলামের শান্তির বাণী প্রচার।

            বর্তমানে দেশের ৩২টি জেলার ৪০টি মিশন কেন্দ্রের মাধ্যমে উল্লেখিত কর্মসূচী বাস্তবায়িত হচ্ছে। ১৯৮৩ সাল থেকে জুন ২০১৫ পর্যন্ত ইসলামিক মিশনের মাধ্যমে সারা দেশে ২ কোটি ৩৪ লক্ষ ২১ হাজার ৪৮৩  জন রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে। চক্ষু শিবিরে ৪৪ হাজার ৩৪৮ জনকে চক্ষু চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়েছে।  ১৫,৩২০ জন মহিলাকে সেলাই প্রশিক্ষণ, ৩১২ জনকে সুদমুক্ত ঋণদান, ১,৬৮৭ জনকে মোবাল্লিগ ও ৯১৮ জন মক্তব শিক্ষককে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।  ৩০,০৮০টি বৃক্ষ রোপন এবং মসজিদভিত্তিক মক্তবে ২,২৫,০৪৭ শিশুকে পাঠদান করা হয়েছে।

জাতীয় ও ধর্মীয় দিবস উদযাপনঃ

ইসলামিক মিশনের মাধ্যমে বিভিন্ন জাতীয় ও ধর্মীয় দিবস উদযাপিত হয়। এ ধরনের অনুষ্ঠানে  রাষ্টের শান্তি, শৃঙখলা, সামাজিক মূল্যবোধ ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা হয়। ধর্মীয় দিবস উদযাপনের মাধ্যমে ইসলামী মূল্যেবোধের প্রচার ও প্রসারের লক্ষে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা হয়।  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ছাত্র/ছাত্রীরদের আদর্শ মানুষ হিসাবে গড়ে তোলার জন্য উৎসাহিত  করা হয়।


Share with :