মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৮ অক্টোবর ২০১৫

ইসলামিক ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় লাইব্রেরী

ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ের উপর গবেষনাসহ সর্বসতরের জনগণের মধ্যে ইসলামী জ্ঞান বিকাশের সুযোগ-সুবিধা সৃষ্টির লক্ষ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশন লাইব্রেরীর কার্যক্রম শুরু হয়। বর্তমানে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীটি বায়তুল মুকাররম জাতীয় মসজিদের দক্ষিণ-পূর্ব কোনে সাহানের উপর অবস্থিত। ইসলামিক ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় লাইব্রেরীতে হযরত উসমান (রা) এর সময়ের হাতে লেখা পবিত্র কুরআন শরীফ ‘‘মাসহাফে উসমানী’র ছায়ালিপি, রাজশাহী জেলার বাসিন্দা সাকুল শিক্ষক মোহাম্দ হামিদুজ্জামান এর হস্ত লিখিত ৬১ কেজি ওজনের ১১০০ পৃস্ঠায় উপমহাদেশের সর্ববৃহৎ পবিত্র কোরআনুল কারীম, চট্টগ্রামের বাসিন্দা জনৈক মফিজুল হক নূরী এর লিখিত কুরআনের ছায়ালিপি, অন্ধদের জন্য ব্রেইল পদ্ধতিতে কুরআন শরীফ,বার্মিজ, তাজিকি, আসাম (বাংলা), লেবানিজ এবং ইন্দোনেশিয়ান ভাষা ভাষীদের জন্য কুরআন শরীফের অনুবাদ গ্রন্থসহ বিভিন্ন ছাপায় পবিত্র কুরআন শরীফ, তাফসীর গ্রন্থ, হাদীস গ্রন্থ, ইসলামী সাহিত্য, চিকিৎসা বিজ্ঞান, ইসলাম ও বিজ্ঞান, ইসলামী অর্থনীতি, ইসলামী দর্শন, ইসলামের ইতিহাস, ইসলামী আইন, বিভিন্ন ভাষায় অভিধান ও বিশ্বকোষ এবং সাহিত্যসমূহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রায় ১,২৩,০০০ (এক লক্ষ তেইশ হাজার), পুস্তক ও পুস্তিকা রয়েছে। এ লাইব্রেরীটি বর্তমানে বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ইসলামিক পাবলিক লাইব্রেরী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। এ ছাড়া দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক ও সাময়িকী মিলিয়ে নিয়মিত প্রায় ৫০টি পত্রিকা রাখা হয়। লাইব্রেরী ভবনের নীচতলায় বাংলাদেশের কৃস্টি কালচার ও ইসলামী কৃস্টি কালচারের সমন্বয়ে সৌন্দর্যমন্ডিত একটি প্রদর্শনী হল রয়েছে। উক্ত প্রদর্শনী হলে মহান আলস্নাহ তা’আলার ৯৯টি গুনবাচক (আসমাউল হুসনা) নাম সমূহের ৩৫টি পোস্টার ও হযরত মুহাম্মদ (সা) এর জীবনীমূলক (বংশ পরিচয় থেকে শুরম্ন করে ওফাত সহ) ১৩টি পোস্টারসহ সর্বমোট ৪৮টি পোস্টার রয়েছে। সকল পাঠক গবেষকদের জন্য উক্ত প্রদর্শনী হল পরিদর্শন করার সুযোগ রয়েছে। উক্ত ৪ তলা বিশিষ্ট লাইব্রেরীর প্রতিটি ফ্লোরে আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত আলাদা আলাদা পাঠকক্ষের ব্যবস্থা রয়েছে। সম্প্রতি লাইব্রেরীতে অটোমেশন কার্যক্রম অর্থাৎ কম্পিউটারের মাধমে যাবতীয় লাইব্রেরী সেবা প্রদানের জন্য একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। তাছাড়া লাইব্রেরীর জন্য ওয়েবসাইট চালু করে লাইব্রেরীকে দেশ-বিদেশের পাঠকদের নাগালের পৌছানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ফলে বিশ্বের যে কোন স্থান থেকে যে-কোন পাঠক ইন্টারনেট এর মাধ্যমে লাইব্রেরী থেকে জরুরী প্রয়োজনে ফটোকপি সার্ভিস প্রদান করা হয়। লাইব্রেরীর নতুন ভবনে ১টি লিফট  ও ১টি মিনি জেনারেটর স্থাপন করা হয়েছে। লাইব্রেরীর সকল কার্যক্রম সিসি টিভি (ক্যমেরা) এর আওতায় আনা হয়েছে। বর্তমানে একজন লাইব্রেরীয়ান এই বিভাগের প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন।


Share with :